সামাজিক বয়কট: তৃনমূল এর ভাইরাল লিফলেট ,মুখ খুললেন Deepak Adhikari (dev)

পশ্চিমবঙ্গবিজেপি কর্মীদের সামাজিক বয়কটের লিফলেট ভাইরাল! ফেসবুক পোস্টে সাফাই দিলেন তৃণমূল সাংসদ দেব

Deepak Adhikari (dev)


নিউজ-বাংলা ডেস্ক news18bangla :-
হামলার-পালটা হামলায় অভিযোগে প্রায়ই তরজায় জড়িয়ে পড়ে শাসক দল থেকে শুরু করে বিরোধীপক্ষ। তবে এবার অভিযোগ টা একটু অন্যরকম। তৃণমূলের বিরুদ্ধে উঠল বিজেপি নেতাকর্মীদের বয়কটের ডাক দিয়ে লিফলেট বিলির অভিযোগ। কেশপুরের মহিষদার এই ঘটনায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করলেন বিজয়ী দল তৃণমূল সাংসদ দেব (Dev)।গতমাসে হয়ে যাওয়া বঙ্গে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই রাজনৈতিক হিংসার ঘটনা মাত্রাতিরিক্ত ভাবে বেড়ে গিয়েছে বলে দাবি জানায় বিজয়ী দলের বিপরীতএকাধিক বিরোধী দল । বিরোধী দলের মধ্যে বিশেষ করে বিজেপির (Bharatiya Janata Party) হাজার হাজার কর্মী-সমর্থক আক্রান্ত হয়েছে ভোট এই পরবর্তী হিংসায় দাপটে। অনেকে বিরোধী দল কর্মীরা এখনও ঘরছাড়া। জানা যায় বেশ কিছু কিছু জায়গায় বিজেপির কর্মীদের ঘরে ফেরানো হচ্ছে, আবার কিছু জায়গা থেকে এও অভিযোগ উঠেছে যে, শুধুমাত্র তৃণমূল (All India Trinamool Congress) করার শর্তেই বিজেপি কর্মীদের ঘরে ফেরানো হচ্ছে।

একদিকে যখন ভোট পরবর্তী রেজাল্টের পর হিংসা নিয়ে উত্তপ্ত গোটা বঙ্গের রাজ্য রাজনীতি, ঠিক তখন আরেকদিকে মেদিনীপুরের বিজেপি কর্মীরা সামাজিক বয়কট করার অভিযোগ তুল্য বিজয়ী দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বিরোধী দল বিজেপির তরফ থেকে অভিযোগ করে বলা হয়েছে যে, তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা লিফিলেট বিলি করে বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের বয়কট করার জন্য চাপ দিচ্ছে এলাকাবাসীকে।

কেশপুরের মহিষাদা থেকে একটি লিফিলেট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে, যেখানে দেখা যায় কয়েকজনা নাম উল্লেখ করে বলা হয়েছে যে, তৃণমূলের অনুমতি ছাড়া এদের যেন কোনও জিনিস বিক্রয় না করা হয়। স্বভাবতই এই লিফলেট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর থেকে চারিদিকে সমালোচনার এক বিশাল ঝড় বয়ে গিয়েছে। তবে এই তালিকায় শুধু বিজেপির কর্মীদেরই না, কিছু সিপিএম কর্মীদেরও নাম রয়েছে বলে সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা যায়।

উক্ত লিফলেটে লেখা হয়েছে যে, ‘পার্টির অনুমতি ছাড়া এই সমস্ত ব্যক্তিদের কোনও জিনিস পত্র বিক্রয় করা যাবে না। এবং চা দোকানদারদের উদ্দেশ্যে জানানো যায় এই ব্যক্তিদের চা দেওয়া যাবে না।” এমনই এক উক্তি লিফলেটের উপরে লেখা রয়েছে ‘মহিষদা তৃণমূল কংগ্রেস বুথ নং ১৭৬ ও ১৭৯।” উল্লেখ্য, কেশপুর আসনটি তৃণমূলের দখলে রইলেও ১৭৬ ও ১৭৯ নং বুথে বিজেপি এগিয়ে রয়েছে। আর এই কারণেই হয়ত বিজেপির কর্মীদের বয়কটের ডাক দেওয়া হয়েছে তৃণমূলের পক্ষ থেকে। ফলে তার জেরেই শাসকদলের তরফে এহেন লিফলেট বিলি করা হয়েছে বলেই দাবি গেরুয়া শিবিরের। যদিও শাসকদল তৃণমূল পক্ষে উঠে আসা অভিযোগ অস্বীকার করেছে। কলুষিত করতে এসব কাজ গেরুয়া শিবিরই করেছে বলেই পালটা দাবি জানাই তৃণমূল।

উক্ত লিফলেটটি খুবই দ্রুততার সাথে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই এই বিষয় নিয়ে মুখ খুলেছেন অভিনেতা তথা তৃণমূল সাংসদ দীপক অধিকারী (Deepak Adhikari ) অর্থাৎ দেব Deepak Adhikari (dev) কেশপুর তৃণমূল সাংসদ দেবের নিজের গ্রাম। তাই তিনি তড়িঘড়ি করে বিষয়টিতে আলোকপাত করেছেন। তিনি এই লিফলেট এর বিষয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট করে । এবং তাতে লিখেছেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে দলের সঙ্গে কথা বলেছি। ওঁরা একথা স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছে যে, আমাদের তরফ থেকে এমন কোনও লিফলেট বিলি করা হয় নি।” যদিও দেবের এই দাবি খারিজ করে দিয়েছে বিরোধী শিবির।




পশ্চিমবঙ্গবিজেপি কর্মীদের সামাজিক বয়কটের লিফলেট ভাইরাল! ফেসবুক পোস্টে সাফাই দিলেন তৃণমূল সাংসদ দেব Deepak Adhikari (dev) Bharatiya Janata Party,All India Trinamool Congress,news18bangla

Leave a Comment